যাদের পোষ্ট ডিলিট করা হয়েছে তাদের পোষ্ট একেবারেই ভাল ছিলনা। সুতরাং পোষ্ট ভাল এবং বড় করার চেষ্টা করুন।
Post Creator Info
Online
's Bio

In one word it is amazing🌠👌 All work best⚠ Stay With informbd
Home » Computer Tips » জেনে নিন কম্পিউটারের ভাইরাস কি? [বিস্তারিত পোস্টে]
জেনে নিন কম্পিউটারের ভাইরাস কি? [বিস্তারিত পোস্টে]

আসসালামু আলাইকুম

সবাই কেমন আছেন


আজকের বিষয় হল কম্পিউটারের ভাইরাস কি?
চলুন তাহলে শুরু করি
>

কম্পিউটার ভাইরাস হল এক ধরনের কম্পিউটার প্রোগাম যা ব্যবহারকারীর অনুমতি ছাড়া একা একাই কপি হতে পারে।

মেটামর্ফিক ভাইরাসের মত তারা প্রকৃত ভাইরাসটি কপিগুলোকে পরিবতর্ন করতে পারে অথবা কপিগুলো নিজেরাই একাই পরিবর্তিত হতে পারে।একটি ভাইরাস হল এক কম্পিউটার থেকে অপর কম্পিউটারে যেতে পারে কেবলমাত্র যখন ভাইরাস আক্রান্ত কম্পিউটারকে স্বাভাবিক কম্পিউটারটির কাছে নিয়ে যাওয়া হয়।

কোন ব্যবহারকারী ভাইরাসটিকে একটি নেটওয়ার্কের মাধ্যমে পাঠাতে পারে বা কোন মাধ্যম যথা ফ্লপি ডিস্ক, সিডি, ইউএসবি ড্রাইভ বা ইণ্টারনেটের মাধ্যমে ভাইরাস ছড়াতে পারে ছড়াতে পারে।

এছাড়াও ভাইরাসসমূহ কোন নেটওয়ার্ক ফাইল সিস্টেমকে আক্রান্ত করতে পারে, যার ফলে অন্যান্য কম্পিউটার যা ঐ সিস্টেমটি ব্যবহার করে সেগুলো আক্রান্ত হতে পারে।

ভাইরাসকে কখনো কম্পিউটার ওয়ার্ম ও ট্রোজান হর্সেস এর সাথে মিল করে ফেলা হয়। ট্রোজান হর্স হল একটি ফাইল যা এক্সিকিউটেড হবার আগ পর্যন্ত ক্ষতিহীন থাকে।

বর্তমানে অনেক পার্সোনাল কম্পিউটার (পিসি) ইণ্টারনেট ও লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্কের সাথে যুক্ত থাকে যা ক্ষতিকর কোড ছড়াতে সাহায্য করে ভাইরাস ছড়াতে।

ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব, ই-মেইল ও কম্পিউটার ফাইল শেয়ারিং এর মাধ্যমে ভাইরাস সংক্রমন হতে পারে। কিছু ভাইরাসকে তৈরি করা হয় প্রোগ্রাম ধ্বংশ করা জন্য।
ফাইল মুছে ফেলা বা হার্ড ডিস্ক পূণর্গঠনের মাধ্যমে কম্পিউটারকে ধ্বংশ করার মাধ্যমে।

অনেক ভাইরাস কম্পিউটারের সরাসরি কোন ক্ষতি না করলেও নিজেদের অসংখ্য কপি তৈরি করে যা লেখা, ভিডিও বা অডিও বার্তার মাধ্যমে তাদের উপস্থিতির প্রকাশ ঘটায়।

নিরীহ দর্শন এই ভাইরাসগুলোও ব্যবহারকারীর অনেক সমস্যা তৈরি করতে পারে। এগুলো স্বাভাবিক প্রোগ্রামগুলোর প্রয়োজনীয় মেমোরি বা জায়গা দখল করে। বেশ কিছু ভাইরাস Bagg তৈরি করে, যার ফলশ্রুতিতে সিস্টেম ক্র্যাশ বা তথ্য হারানোর সম্ভাবনা থাকে 80%।

এণ্টি-ভাইরাস সফটওয়্যার এবং অন্যান্য প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা যার মাধ্যমে ভাইরাস কিছুটা দূরিভিত করা যায়

দুটি সাধারণ পদ্ধতিতে এণ্টি-ভাইরাস সফটওয়্যারগুলো ভাইরাস শনাক্ত করে থাকে। প্রথম ও সর্বাধিক প্রচলিত পদ্ধতিটি হল ভাইরাস সিগনেচার সংগ্ঞার তালিকা থেকে ভাইরাস সনাক্তকরণ।

এই সনাক্তকরণ পদ্ধতির প্রধান সমস্যা হল ব্যবহারকারীরা কেবল সেসব ভাইরাস থেকেই রক্ষা পান যেগুলো পুর্বোক্ত ভাইরাস সংগ্ঞার আপডেটে উল্লিখিত থাকে।

দ্বিতীয় পদ্ধতিটি হল হিউরিস্টিকএলগরিদম যা ভাইরাসের সাধারণ সংগ্ঞা থেকে সনাক্ত করা হয়। এই পদ্ধতিতে এণ্টি-ভাইরাস সিগনেচার ফার্ম কর্তৃক সংগ্ঞায়িত ভাইরাস না হয়েও তা সনাক্ত করা যায় আরাম ভাবে।
সারানোর প্রক্রিয়া

কোন কম্পিউটার একবার ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত হবার পর অপারেটিং সিস্টেম পুনরায় ইনস্টল করা ছাড়া তা ব্যবহার করা বিপদজনক। তবে ভাইরাস আক্রান্ত কম্পিউটারকে সারিয়ে তোলার জন্য বেশ কয়েকটি পদ্ধতি রয়েছে। এই পদ্ধতিগুলো ভাইরাসের প্রকার ও আক্রান্ত হবার মাত্রার উপর নির্ভর করে।

ভাইরাস মুছে ফেলা

উইণ্ডোজ এক্স পিতে ক্ষতিগ্রস্ত সিস্টেমকে পূর্বাবস্থায় ফিরিয়ে নিয়ে আসার পদ্ধতিটি সিস্টেম রিস্টোর নামে পরিচিত, যা রেজিস্ট্রি এবং গুরুত্বপূর্ণ সিস্টেম ফাইলসমূহকে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে নিয়ে আসতে সক্ষম।

অনেক সময় এর প্রয়োগ ভাইরাস সিস্টেমটিকে Hank করে দেয় এবং পরবর্তীতে Heart rebot এটিকে ক্ষতিগ্রস্ত করার আগের অবস্থায় নিয়ে যাবে। অবশ্য কিছু virus রিস্টোর সিস্টেমসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ tools যথা টাস্ক ম্যানেজার এবং কমাণ্ড প্রম্পট বিকল করে দেয়। এগুলো করে এমন একটি ভাইরাসের নাম সায়াডোর।

বিভিন্ন উদ্দেশ্যে এডমিনিস্ট্রেটরের উক্ত টুলগুলো অন্যান্য ব্যবহারকারীদের জন্য অকেজো করে রাখার ক্ষমতা আছে। ভাইরাস রেজিস্ট্রিকে পরিবর্তন করে দেবার মাধ্যমে একই কাজ করে, ফলে যখন একজন প্রশাসক কম্পিউটারটি চালান তখন তিনিসহ অন্যান্য ব্যবহারকারী এই টুলগুলো ব্যবহার করা থেকে বঞ্চিত হন।

যখন একটি আক্রান্ত টুল ভাইরাসের মাধ্যমে অকেজো হয়ে যায় তখন তা “Task Manager has been disabled by your administrator.” বার্তাটি দেয়।

অপারেটিং সিস্টেমের রিইন্সটলেশন যদি কোন কম্পিউটারে এমন কোন ভাইরাস থাকে যা এণ্টি ভাইরাস সফটওয়্যারের পক্ষে মুছে ফেলা সম্ভব না হয় তবে অপারেটিং সিস্টেমের পুনরায় ইন্সটলেশন জরুরি হতে পারে। এটি সঠিকভাবে করার জন্য হার্ড ড্রাইভ সম্পুর্ণভাবে ডিলিট ।

আজ এই পর্যন্ত। সবাই ভালো থাকবেন।
যেকোনো প্রয়োজনে আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারেন
ফেসবুক :আমি ফেসবুকে
টুইটার :আমি টুইটারে
গুগল :আমি গুগলে
ইনসটাগ্রাম :আমি ইনটাগ্রামে

আমাদের সাইটের অফিসিয়াল পেজ
>
Join our official Facebook Page
আমাদের সাইটের অফিসিয়াল গ্রুপ
> :
Join our official Facebook Group

আমাদের সাইটের অ্যাপ ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন

আরো ভালো ভালো ট্রিক এবং টিপস্ পেতে এই সাইটের সাথে থাকুন।

বেশি বেশি করে ভিজিট করুন।

Read More


Post Date: October 3, 2018 Total: 533 Views

1 responses to “জেনে নিন কম্পিউটারের ভাইরাস কি? [বিস্তারিত পোস্টে]”

Leave a Reply on InformBD.Com

You must be to post comment.

Copyright © 2018 All rights reserved.
error: Content is protected !!